শিরোনাম

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর সাবরেজিষ্ট্রি অফিসে

কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনা মুখে মুখে ॥ পিয়নের বিরুদ্ধে থানায় জিডি

শফিকুল ইসলাম সোহেল | শনিবার, ৩০ নভেম্বর ২০১৯ | পড়া হয়েছে 331 বার

কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনা মুখে মুখে ॥ পিয়নের বিরুদ্ধে থানায় জিডি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে সরকারি কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনা এখন মানুষের মুখে মুখে। তবে কত টাকা আত্মসাত হয়েছে এ ব্যাপরে মুখ খূলছেন না সংশ্লিষ্টরা। এদিকে অফিসে অডিট চলাকালে অফিসের পিয়ন (অফিস সহায়ক) মোঃ ইয়াছিন-(৪২) রহস্যজনকভাবে নিখোঁজের ঘটনায় সদর মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করা হয়েছে।

সদর সাব রেজিষ্ট্রার মোস্তাফিজ আহমেদ গত শুক্রবার (২৯নভেম্বর, ২০১৯) রাতে সদর মডেল থানায় এই জিডি করেন। জিডি হওয়ার পর পুলিশ নিখোঁজ ইয়াছিনের তিন স্ত্রীর মধ্যে দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন। গত শুক্রবার রাতে ইয়াছিনের প্রথম স্ত্রী সাজেদা বেগমকে থানায় ডেকে এনে এবং দ্বিতীয় স্ত্রী আকলিমা বেগমকে তার পশ্চিম পাইকপাড়ার বাসায় গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।


সদর থানার উপ-পরিদর্শক ও জিডির তদন্তকারী কর্মকর্তা সুমন চক্রবর্তী বলেন, ইয়াছিনের বিষয়ে জানতে আমরা ইয়াছিনের দুই স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। তার তৃতীয় স্ত্রীকে পাওয়া যায়নি। আমরা ধারণা করছি ইয়াছিনের তৃতীয় স্ত্রীও তার সাথে পালিয়ে গেছে।

এদিকে সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের একাধিক সূত্র জানায়, গতকাল শনিবার অফিসের অডিট কার্যক্রম বন্ধ ছিলো। রোববার আবার অডিট কার্যক্রম শুরু হবে। একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানান, বর্তমান ও পূর্বের দুই সাব রেজিষ্ট্রার মিলে তছরুফকৃত ১ কোটি টাকা আজ (রোববার) সোনালী ব্যাংকে জমা দেবেন।
সদর মডেল থানায় সাব রেজিষ্ট্রার মোস্তাফিজ আহমেদের দায়েরকৃত জিডিতে বলা হয়, গত মঙ্গলবার চট্টগ্রাম রেজিষ্ট্রার অফিসের বিভাগীয় পরিদর্শক ব্রাহ্মণবাড়িয়া সাব রেজিষ্ট্রার অফিসের রাজস্ব আদায় নিরীক্ষাকালে (অডিট) গরমিল পাওয়া যায়। পরে সোনালী ব্যাংকে গিয়ে চালানগুলো পরীক্ষাকালে এগুলো ভুয়া প্রমানিত হয়। এ ব্যাপারে অফিসের পিয়ন ইয়াছিনকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে কোন সদুত্তর দিতে পারেনি। বৃহস্পতিবার থেকে ইয়াছিন অফিসে অনুপস্থিত।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে সরকারি কয়েক কোটি টাকা সোনালী ব্যাংকের চালান জালিয়াতির মাধ্যমে লুটপাট করা হয়েছে। এই লুটপাটের সাথে অফিসের দায়িত্বশীল কর্মকর্তা-ও কয়েকজন কর্মচারী জড়িত।

গত মঙ্গলবার থেকে অফিসে অডিট কার্যক্রম শুরু হলে এই লুটপাটের বিষয়টি প্রকাশ হতে থাকে। এর পর থেকেই পালিয়ে যান অফিসের পিয়ন ইয়াছিন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অফিসের একাধিক সূত্র জানায়, সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের সরকারি চালান, নকল তল্লাশী, রেজিষ্ট্রি ফি-সহ নানা খাতের এই টাকা টাকা লুটপাট হয়।

অফিসের সংশ্লিষ্টরা জানান, অফিসের পিয়ন মোঃ ইয়াছিন -(৪২) দীর্ঘদিন ধরে অফিসের সরকারি চালান, নকল তল্লাশী, রেজিষ্ট্রি ফি, নকল ফিসহ বিভিন্ন খাতের চালানের টাকা ব্রাহ্মণবাড়িয়া সোনালী ব্যাংকের প্রধান শাখায় জমা দেওয়ার দায়িত্ব পালন করতো।

গত মঙ্গলবার থেকে বিভাগীয় পরিদর্শক মিতেন্দ্র নাথ শিকদার অফিসের অডিট কার্যক্রম শুরু করে সাব রেজিষ্ট্রার মোস্তাফিজ আহমেদকে অফিসে থাকা চালান কপিগুলো ব্যাংকে গিয়ে মিলিয়ে দেখার কথা বলেন। মোস্তাফিজ আহমেদ ব্যাংকে গিয়ে চালান কপিগুলো মিলাতে গিয়ে জানতে পারেন ব্যাংকে সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের অনেক চালান জমা দেয়া হয়নি। অফিস সহায়ক ইয়াছিন মিয়া সোনালী ব্যাংকের চালান কপিতে ভুয়া সীল মোহর ও স্বাক্ষর করে সরকারি টাকা আত্মসাত করেছে। সোনালী ব্যাংকের ভলিয়মে সাবরেজিষ্ট্রি অফিসের জমা দেয়া সব চালানের টাকা জমা হয়নি।
বিষয়টি সাব রেজিষ্ট্রার মোস্তাফিজ আহমেদ পিয়ন ইয়াছিন মিয়াকে জিজ্ঞেস করলে ইয়াছিন অফিস থেকে সটকে পড়েন। এর পর থেকেই সে পলাতক। তার ব্যবহৃত দু’টি মোবাইল ফোনও বন্ধ রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অফিসের একজন কর্মচারী জানান, তদন্তে গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত প্রায় অর্ধকোটি টাকা আত্মসাতের প্রমাণ পাওয়া গেছে। তদন্ত শেষে জানা যাবে কি পরিমান সরকারি অর্থ লুটপাট হয়েছে।

এ ব্যাপারে সদর সাব রেজিষ্ট্রার মোঃ মোস্তাফিজ আহমেদ জানান, এ ঘটনায় তদন্ত চলছে, আরো তদন্ত চলবে। তিনি বলেন, অফিস সহায়ক ইয়াছিন মিয়া সোনালী ব্যাংকের ভুয়া চালান কপির মাধ্যমে সরকারি বিপুল পরিমান অর্থ আত্মসাত করেছেন বলে প্রতিয়মান হচ্ছে। অডিট শেষে টাকার পরিমান বলা যাবে। তিনি বলেন, ইয়াছিন মিয়ার চাকুরীকালীন তার হাতে সোনালী ব্যাংকে জমা দেয়া সকল চালান কপি পরীক্ষা করে দেখা হবে। তিনি ইয়াছিন নিখোঁজের ঘটনায় সদর মডেল থানায় জিডি করেছেন।

এ ব্যাপারে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন জানান, সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের পিয়ন নিখোঁজের ঘটনায় থানায় জিডি করা হয়েছে। আমরা তার দুই স্ত্রীসহ আত্মীয় স্বজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১