শিরোনাম

কুকুরের উপদ্রব বেড়েছে : আতঙ্কে শহরবাসী

স্টাফ রিপোর্টার : | রবিবার, ১১ মার্চ ২০১৮ | পড়া হয়েছে 155 বার

কুকুরের উপদ্রব বেড়েছে : আতঙ্কে শহরবাসী

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকায় বেড়েছে বেওয়ারিশ কুকুরের উৎপাত। অস্বাভাবিক হারে কুকুরের বংশ বিস্তার ও উৎপাত বৃদ্ধি পেলেও বন্ধ রয়েছে কুকুর নিধন অভিযান। বেওয়ারিশ কুকুরের উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে পৌর এলাকার প্রতিটি পাড়া ও মহল্লাবাসী।

দিনের বেলা শহরের কুকুরের সংখ্যা কম থাকলেও সন্ধ্যার পর পরই বেওয়ারিশ কুকুর বিভিন্ন মহল্লা থেকে শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নেয়। রাত বাড়ার সাথে সাথে বাড়ে কুকুরের সংখ্যাও উৎপাত।


পৌর এলাকার ভাদুঘর বাস টার্মিনাল, মেড্ডা বাসস্ট্যান্ড, কাউতলী মোড় চৌরাস্তা, কালীতলী স্টেডিয়াম মার্কেটের সামনে, কালীবাড়ি মোড়, রেলওয়ে স্টেশন, কান্দিপাড়ার মোড়, মেড্ডা সিও অফিসের মোড়, মওলা ভবনের সামনে, সদর থানা কম্পাউন্ড, মঠের গোড়া, সদর হাসপাতালের সামনে, কুমারশীল মোড়, জেলরোড মোড়, পৌর ভবনের সামনে, সুপার মার্কেটের সামনে, অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে, খৈয়াসারের মোড়, সড়ক বাজার গোলচত্বর, মহাদেবপট্টিসহ বিভিন্ন স্থানে রাতের বেলা দলবেঁধে কুকুর হাটাহাটি করে। কোন পথচারীকে একা পেলে তার উপর হামলে পড়ার চেষ্টা করে।

এছাড়াও রাতের বেলা পৌরসভার ১২টি ওয়ার্ডের বিভিন্ন রাস্তায় কুকুরের উৎপাতে মহল্লাবাসী বাড়ি থেকে বের হতে ভয় পায়। গত মাসখানেক আগে মধ্যপাড়া এলাকায় দুলাল মিয়া নামে এক ব্যক্তি কুকুরে কামড় দেয়। পৌর এলাকার কাজীপাড়ার বাসিন্দা মোরশেদ মিয়া বলেন, পৌর কর্তৃপক্ষ সময় মতো কুকুর নিধন না করায় বর্তমানে শহরে কুকুরে উপদ্রব বেড়েছে। তিনি বলেন, কুকুরের উপদ্রবে রাতের বেলা শহরে চলাফেরা করতে সমস্যা হয়। রাতের বেলা কুকুরের দল কাউকে একা পেলে তার উপর আক্রমন করার চেষ্টা করে। অনেক সময় কুকুর রিক্সাযাত্রীকেও লাফিয়ে কামড় দেওয়ার চেষ্টা করে।

মধ্যপাড়ার বাসিন্দা ফারুক মিয়া বলেন, ভোরে কুকুরের উপদ্রবে বাসাবাড়ির ছোট ছোট বাচ্চাদের স্কুল, কোচিংসহ চলাচলে চরম সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। কখন কুকুর কাকে কামড় দেয় সেই আতংকে থাকি। শহরবাসী অবিলম্বে বেওয়ারিশ কুকুর নিধনের জন্য পৌর কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানিয়েছেন।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১