শিরোনাম

কাল ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) আসনের ভোট গ্রহণ : সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন

নাসিরনগর প্রতিনিধি : | সোমবার, ১২ মার্চ ২০১৮ | পড়া হয়েছে 176 বার

কাল ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) আসনের ভোট গ্রহণ : সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) শূন্য আসনের উপ-নিবার্চন আগামীকাল মঙ্গলবার (১৩.০৩.২০১৮)। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নিবার্চন সম্পন্ন করতে নিবার্চন কমিশন ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে। উপজেলা নিবার্চন অফিস সূত্রে জানা যায়, র‌্যাব, বিজিবি, পুলিশ, আনসার ভিডিপিসহ ১ হাজার ৭শত ৭৬ জন আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে তিনটি করে ৩৯টি মোবাইল টিম দায়িত্ব পালন কবরেন। ২০ জন নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট, ৪জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিবার্চনী এলাকায় দায়িত্ব পালন করবেন।


উপজেলা নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা যায়, জাতীয় সংসদের ২৪৩ নং ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১- সংসদীয় আসনে মোট ভোটার ২ লাখ ১৪ হাজার ৯ জন। এর পুরুষ ভোটার ১ লাখ ১০ হাজার ৪শ ১০ জন ও মহিলা ভোটার ১ লাখ ৩ হাজার ৫শ ৯৯ জন। উপ-নির্বাচনে ৭৪টি ভোট কেন্দ্রের ৩৬৪টি ভোটকক্ষে ভোট গ্রহণ করা হবে।

৭৪ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ৩শত ৬৪ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও ৭শত ২৮ জন পোলিং অফিসার নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ভোটার নির্বিঘেœ যাতে ভোট দিতে পারে সে জন্য সকল ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। জাতীয় সংসদের ২৪৩ নং ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) সংসদীয় আসনে ভোটার দুই লাখ ১৪ হাজার ৯ জন। পুরুষ ভোটার এক লাখ ১০ হাজার ৪শত ১০ জন ও মহিলা ভোটার ১ লাখ ৩ হাজার ৫শ’ ৯৯ জন।

আঞ্চলিক নিবার্চন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মোঃ শাহেদুন্নবী চৌধুরী জানান, অবাধ সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নিবার্চন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে সকল ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। ভোটাররা যাতে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে নির্বিঘেœ ভোট দিতে পারে। এছাড়া ঝুঁিকপূর্ণ কেন্দ্র চিহ্নিত করে সেখানে নেয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা।

এদিকে গত ৮ মার্চ প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা নাসিরনগরের উপ-নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে সব ধরণের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এ সংক্রান্ত বিষয়ে আইনশৃংখলা সভা ও নাসিরনগরে পোলিং এজেন্টদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে যোগ দেন। এসব অনুষ্ঠানে ও সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি সুষ্ঠু নির্বাচনের আশ্বাস দেন।

উল্লেখ্য, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী ও স্থানীয় সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট ছায়েদুল হকের মৃত্যুতে আসনটি শূণ্য হয়। গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর তিনি মারা গেলে নির্বাচন কমিশন আসনটি শূণ্য ঘোষণা করে। ১৯৭৩, ১৯৯৬, ২০০১, ২০০৮, ২০১৪ সালে তিনি এ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১