শিরোনাম

কাবাডি লীগের উদ্বোধনকালে অতিরিক্ত ডিআইজি হাবিবুর রহমান সরকার দেশীয় খেলার বিকাশে ব্যাপকভাবে কাজ করছে

স্টাফ রিপোর্টার : | শনিবার, ০৪ মার্চ ২০১৭ | পড়া হয়েছে 538 বার

কাবাডি লীগের উদ্বোধনকালে অতিরিক্ত ডিআইজি হাবিবুর রহমান সরকার দেশীয় খেলার বিকাশে ব্যাপকভাবে কাজ করছে

হাজার হাজার মানুষের বাঁধ-ভাঙ্গা উচ্ছাস আর তুমুল প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শুরু হয়েছে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে কাবাডি লীগ ২০১৭। বর্ণাঢ্য আয়োজন আর আনন্দঘন পরিবেশে এ কাবাডি লীগের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত ডেপুটি ইন্সপেক্টর জেনালের ও কাবাডি ফেডারেশরন মহাসচিব হাবিবুর রহমান বিপিএম(বার) ও পিপিএম। জেলা ক্রীড়া সংস্থার ব্যবস্থাপনায় ও জেলা পুলিশের সার্বিক সহায়তায় গত শনিবার বিকালে অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় বোর্ডিং মাঠে প্রধান অতিথি হাবিবুর রহমান জাতীয় সঙ্গীতের সাথে জাতীয় পতাকা, শান্তির প্রতীক অবমুক্ত ও উদ্বোধনী বেলুন উড়িয়ে কাবাডি লীগের সূচনা করেন। জাতীয় সঙ্গীত পরিচালনা করেন সঙ্গীতশিল্পি নবনীতা রায় বর্মণ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ হিসাবে ডিসপ্লেতে অংশ নেন বাংলাদেশের বিশিষ্ট মডেল ও অভিনেত্রী সুজানা। এছাড়াও অংশ নেয় পুলিশ সদস্য সজিব, নাসির ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সমাজকর্মী জেবিন ইসলাম। ডিসপ্লেতে অংশ নেয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষার্থীরা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেসিডেন্সিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ ও সূর্যমুখী কিন্ডার গার্টেন। প্রতিটি ডেসপ্লে মাঠে উপস্থিত দর্শক-শ্রোতাদের ব্যাপক মুগ্ধ করে। বিশেষ করে মাঠের দক্ষিণ পাশে অস্থায়ী গ্যালারিতে জাতীয় পতাকা, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পুলিশের মহাপরিদর্শক একেএম শহীদুল হকের বিভিন্ন পুলিশি কার্যক্রমের ছবি সকলের নজর কাড়ে। অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুকে নিবেদিত আবৃত্তি করেন আবৃত্তিশিল্পি সানজিয়া আফরিন। জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমানের সভাপতিত্বে ও আবৃত্তিশিল্পি মো. মনির হোসেনের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান পিপিএম (বার), পৌর মেয়র মিসেস নায়ার কবীর, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকার, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জান্নাতুল ফেরদৌস। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু। এসময় প্রধান অতিথি হাবিবুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুরোপুরি ক্রীড়া বান্ধব সরকার পরিচালনা করছেন। প্রধানমন্ত্রী নিজে খেলাধুলা ভীষণ পছন্দ করেন। মাঝে মাঝে নিজেই তিনি মাঠে উপস্থিত হয়ে খেলোয়াড়দের সাথে কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশীয় খেলাধুলাকে ব্যাপকভাবে বিকাশ ঘটনানোর জন্য সর্বাত্মক কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। আমাদের জাতীয় খেলা কাবাডিকেও অনেকদূর এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। সেই লক্ষ্যে বর্তমান সরকার কাবাডি খেলার উন্নয়নে ব্যাপক আন্তরিক। আমরা কাবাডি খেলাকে পুরোপুরি পেশাদারী খেলায় পরিনত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। তরুণ প্রজন্মকে সুন্দর সমাজ ও রাষ্ট্র পরিচালনার উপযুক্ত করে গড়ে তুলতে হলে খেলাধুলার ব্যাপক চর্চা দরকার। এদেশের গ্রাম-বাংলার মানুষ এখনো কাবাডি খেলাকে ভুলে যায়নি, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিপুল মানুষের উপস্থিতি তাই প্রমাণ করছে। উদ্বোধনী কাবাডি খেলায় অংশ নেয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা ও বিজয়নগর উপজেলা কাবাডি দল। চরম উত্তেজনাকর আর তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ণ খেলায় ৬ পয়েন্টে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা দল বিজয়ী হয়। কাবাডি খেলা চলাকালে হাজার হাজার মানুষ করতালি দিয়ে তাদের উচ্ছাস প্রকাশ করেন। খেলায় রেফারির দায়িত্ব পালন করে আবু মুসা খসরু ও স্কোরারের দায়িত্ব পালন করেন আবদুস সাকির ছোটন ও আবু কাউসার খান। এছাড়া সহযোগীতা করেন আবুল কাসেম, মহিম চৌধুরী, রফিক, মন্টু, বুলবুল। এই কাবাডি লীগের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সার্বিক পরিকল্পনা ও নির্দেশনায় ছিলেন পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান পিপিএম (বার)।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০