শিরোনাম

ইভটিজিংকে কেন্দ্র করে

কসবায় হরিজন সম্প্রদায়ের বিয়ে বাড়িতে হামলা ॥ গ্রেপ্তার-৩

কসবা প্রতিনিধি | রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | পড়া হয়েছে 156 বার

কসবায় হরিজন সম্প্রদায়ের বিয়ে বাড়িতে হামলা ॥ গ্রেপ্তার-৩

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ইভটিজিংয়ের ঘটনাকে কেন্দ্র করে হরিজন সম্প্রদায়ের বিয়ে বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর করেছে সন্ত্রাসীরা। এ সময় সন্ত্রাসীরা বরকে মারধোর করে তার গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয়। ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার বিকেলে উপজেলার বিনাউটি ইউনিয়নের রাউৎহাট গ্রামে। এ ঘটনায় কসবা থানায় মামলা হয়েছে। রাতেই পুলিশ ৩ সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করে।
খবর পেয়ে গতকাল শনিবার সকালে আইনমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব অ্যাডভোকেট রাশেদুল কায়সার ভূইয়া জীবন, কসবা পৌর মেয়র মোঃ এমরান উদ্দিন জুয়েল, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ¦ রুহুল আমিন ভূইয়া বকুল, বিনাউটি ইউপি চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মোঃ ইকবাল হোসেন, উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি দিলীপ কুমার রায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, গত শুক্রবার বিকেলে রাউৎহাট গ্রামের হরিজন সম্প্রদায়ের জহরলাল ঋষির ছেলে হুমেন ঋষি বিয়ে করতে সদর উপজেলার মজলিশপুর গ্রামে যাওয়ার সময় একই গ্রামের জামাল মিয়া ছেলে তপু- (২২) বরযাত্রী রেখা ঋষিকে ইভটিজিং করে। এসময় কিশোরীর বড় ভাই রায়মন ঋষি প্রতিবাদ করলে উভয়ের মাঝে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়। পরে ইভটিজার তপু মোবাইল ফোনে পার্শ্ববর্তী নেমতাবাদ-মনিচং ও চান্দাইসার গ্রামের কতিপয় যুবক এনে বিয়ে বাড়িসহ হরিজন সম্প্রদায়ের বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাট করে। এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা বর হুমেন ঋষিকে মারধোর করে তার গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয়। হামলায় হরিজন সম্প্রদায়ের ৫ জন আহত হয়। আহত অবস্থায় রায়মন ঋষি-(২৫) কে প্রথমে কসবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
খবর পেয়ে পুলিশ সুপারের নির্দেশে দ্রুত ৩ প্লাটুন দাঙ্গা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে। পরে পুলিশের সহযোগিতায় বর ও বরযাত্রীদের ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদরের মজলিশপুর গ্রামের কনের বাড়িতে পাঠানো হয়। বিয়ে অনুষ্ঠান শেষে গতকাল শনিবার সকালে ছেলের বাড়িতে সকল আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়।
রাতেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন স্থান থেকে মাসুক, জুয়েল,তানভীর নামক ৩ সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করে।
এ ব্যাপারে সহকারি পুলিশ সুপার (কসবা-আখাউড়া সার্কেল) আবদুল করিম ও কসবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বলেন, রাতেই অভিযান চালিয়ে ৩ সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ জহরলাল ঋষি বাদী হয়ে ১৬জনকে আসামী করে কসবা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১