শিরোনাম

কসবায় স্বর্ণের চেইন গিলে ফেলেও শেষ রক্ষা হয়নি চোরের

কসবা প্রতিনিধি : | মঙ্গলবার, ১৫ মে ২০১৮ | পড়া হয়েছে 884 বার

কসবায় স্বর্ণের চেইন গিলে ফেলেও শেষ রক্ষা হয়নি চোরের

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবায় এক প্রবাসী স্ত্রীর স্বর্ণের চেইন নিয়ে হুলস্থুল কান্ড শুরু হয়েছে। চুরি করার পর ওই চেইন গিলে ফেলেছে চোর। মলত্যাগের মাধ্যমে বের করার চেষ্টার সময় ওই চোর হাতকড়াসহ পালিয়ে যায়। পরে স্কুলছাত্ররা তাকে আটক করে। আজ মঙ্গলবার (১৫.০৫.২০১৮) দুপুরে চুরির ঘটনার পর বিকেল পাঁচটা নাগাদ চেইনটি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

হুলস্থুল কান্ড ঘটনাতে থাকা চোরের নাম মো. রাশেদ ভূইয়া (৩২)। সে উপজেলার রাইতলা গ্রামের সানু ভূইয়ার ছেলে। বর্তমানে সে পুলিশ হেফাজতে আছে। মলত্যাগ করার জন্য তাকে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ি ওষুধ খাওয়ানো হয়েছে।


স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার খেওড়া গ্রামের এক প্রবাসীর স্ত্রী মৌসুমী আক্তারের একটি স্বর্ণের চেইন চুরি হয়। এ ঘটনায় হাতেনাতে স্থানীয়রা আটক করে চিহ্নিত চোর রাশেদ ভূঁইয়াকে। আটকের পর রাশেদ স্বর্ণের চেইনটি মুখে দিয়ে গিলে ফেলে। খবর পেয়ে পুলিশ এসে চোর রাশেদকে নিয়ে যায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। কর্তব্যরত চিকিৎসক পুলিশকে জানায়, পায়খানা করানো ছাড়া চেইন বের করা সম্ভব নয়। পায়খানা করিয়ে চেইন বের করতে নিয়ে যাওয়া হয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের তিন তলার টয়লেটে। টয়লেটের ভেতরে একটি মাটির পাতিল দিয়ে বলা হয় রাশেদকে টয়লেট করতে। দুই হাতে হাতকড়া পড়িয়ে দরজা বন্ধ করে তাকে মলত্যাগের কথা বলা হয়। ১০ মিনিটেও তার কোন সারা শব্দ পাওয়া না যাওয়ায় পুলিশ দরজা খুলে দেখেন রাশেদ নেই। কসবা পৌর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রাশেদকে দেখে সন্দেহ হলে আটক করে পুলিশে খবর দেন।

কসবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, চোর রাশেদ পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। ওষুধের মাধ্যমে তাকে মলত্যাগ করিয়ে স্বর্ণের চেইন উদ্ধারের প্রক্রিয়া চলছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হবে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১