শিরোনাম

অধ্যাপক একেএম হারুনুর রশীদের প্রয়াণ দিবসের আলোচনায়এডিসি সাহেদুল ইসলাম

একেএম হারুনুর রশীদ একাধারে যেমন কবি,গীতিকার ও নাট্যকার ছিলেন তেমনি ছিলেন মানুষ গড়ার আদর্শ ও জনপ্রিয় শিক্ষক

| বৃহস্পতিবার, ০৮ নভেম্বর ২০১৮ | পড়া হয়েছে 144 বার

একেএম হারুনুর রশীদ একাধারে যেমন কবি,গীতিকার ও নাট্যকার ছিলেন তেমনি ছিলেন মানুষ গড়ার আদর্শ ও জনপ্রিয় শিক্ষক

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) উপসচিব মো.সাহেদুল ইসলাম বলেছেন,অধ্যাপক একেএম হারুনুর রশীদের মতো সৃজনশীল মানুষেরা এখানে থেকে সংস্কৃতির সেবা করেছেন বলেই আমরা ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাদীপ্ত সংস্কৃতির রাজধানী বলার সুযোগ পেয়েছি। তিনি একাধারে যেমন কবি,গীতিকার ও নাট্যকার ছিলেন্ তেমনি ছিলেন মানুষ গড়ার আদর্শ ও জনপ্রিয় শিক্ষক। মহান মুক্তিযুদ্ধে তাঁর অবদান চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। অধ্যাপক একেএম হারুনুর রশীদের জীবন ও আদর্শকে অনুসরণ করে নতুন প্রজন্ম দেশপ্রেমিক-সৃজনশীল মানুষ হয়ে উঠতে পারবে।

তিনি আজ ০৮ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে বিশিষ্ট কবি,গীতিকার,নাট্যকার,মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক অধ্যাপক একেএম হারুনুর রশীদের প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে জেলা শিল্পকলা একাডেমী আয়োজিত স্মরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।


জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকারের সভাপতিত্বে ও কার্যকরী সদস্য বাছির দুলালের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পৌর মেয়র মিসেস নায়ার কবীর ও সরকারী মহিলা কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর এএসএম শফিকুল্লাহ।আলোচনা করেন কবি আবদুল মান্নান সরকার,নাট্যজন মনজুরুল আলম,সাংবাদিক আবদুন নূর।

স্বাগত ভাষণ দেন জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক এসআরএম উসমান গনি সজির।

অনুষ্ঠানে জেলা শিল্পকলা একাডেমীর শিল্পিরা একেএম হারুনুর রশীদ রচিত সঙ্গীত ও তিতাস আবৃত্তি সংগঠনের শিল্পিরা কবিতা আবৃত্তি পরিবেশন করে।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১