শিরোনাম

উইন্ডিজের জয় : পরাজয়ের মূল কারণ ব্যাটিং বিপর্য

স্পোর্টস ডেস্ক : | সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮ | পড়া হয়েছে 305 বার

উইন্ডিজের জয় : পরাজয়ের মূল কারণ ব্যাটিং বিপর্য

বাজে ব্যাটিংয়ের কারণেই টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে পরাজিত বাংলাদেশ দল। ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে দাপটের সঙ্গে (৮ উইকেট) জয় পাওয়া বাংলাদেশ, সেই ধারাবাহিকতা টি-টোয়েন্টি সিরিজে ধরে রাখতে পারেনি। ঘূর্ণিঝড় ‘ফেথাই’ বিকেল নাগাদ অন্ধ্র উপকূল অতিক্রম করতে পারে। বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চলে তাই সতর্ক সংকেত। বৃষ্টি হচ্ছে দেশের বিভিন্ন স্থানে। বিকেল নাগাদ সেই সম্ভাবনা আছে সিলেটে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়তো তাই তাড়াহুড়ো। বিকেলের আগে শেষ করতে হবে ম্যাচ। সিলেটের দর্শকদের তাই দেখিয়ে দিল ‘ফেথাাই’ তান্ডব। হোপ-কেমো পলদের ওই ব্যাটিং তান্ডবে ১১ ওভারের মধ্যে লক্ষ্যে পৌছে গেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জয় পেয়েছে ৮ উইকেটের। বড় এই জয়ে জমে থাকা সব ঝাঁঝ বের করে দিয়েছে তারা।

এর আগে ব্যাট হাতে প্রথমে মামুলি সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। সংগ্রহটা মামুলি বানিয়ে ফেলে সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বাংলাদেশের দেওয়া ১৩০ রানের লক্ষ্যে শুরুতে দুই ওপেনার ঝড় তোলে। শাই হোপের তান্ডবে কাঁপন ধরে বাংলাদেশ বোলারদের। এ ম্যাচে তৃতীয় দ্রুততম টি-২০ ফিফটি তুলে নেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওপেনার শাই হোপ। তিনি ফেরেন ২৩ বলে ৫৫ রান করে।


ওয়ানডে সিরিজে জোড়া সেঞ্চুরি করেন হোপ। কিন্তু শেষ ম্যাচটায় সেঞ্চুরি করেও দলকে জেতাতে পারেননি তিনি। এরপর প্রথম টি-২০ ম্যাচে ইনজুরি নিয়ে খেলা নিয়ে সামান্য শঙ্কা ছিল। কিন্তু ব্যাট হাতে তিনি যা দেখালেন মিরাজ-আবু হায়দাররা মনে রাখবেন তাকে। তিনি আউট হওয়ার পরে নিকোলাস পরান ২৩ রান অপরাজিত থাকেন। আর কেমো পল শেষটায় দেখান আরেক ঝড়। তিনি খেলেন ১৪ বলে ২৮ রানের ইনিংস। এছাড়া ওপেনার এভিন লুইস ১৮ রান করে আউট হন।

এর আগে বাংলাদেশ দল ছয় বল হাতে রেখে ১২৯ রানে অলআউট হয়ে যায়। বাংলাদেশের হয়ে টি-২০ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ৪৩ বলে ৬১ রান করে ফেরেন। এছাড়া আরিফুল হক করেন ১৭ রান। মাহমুদুল্লাহ ১২ রান করে ফেরেন। বাংলাদেশের অন্য কোন ব্যাটসম্যান ১০ রানের কোটায় উঠতে পারেনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে শেলডম কটরেল নেন ৪ উইকেট। তিনি ম্যাচ সেরা হন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :
বাংলাদেশ : ১৯ ওভার ১২৯/১০
ওয়েস্ট ইন্ডিজ : ১০.৫ ওভার ১৩০/১
ফল : ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৮ উইকেটে জয়ী

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১