শিরোনাম

ইসলামী ঐক্যজোট নেতা এখন যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক

সরাইল প্রতিনিধি : | শনিবার, ২৪ মার্চ ২০১৮ | পড়া হয়েছে 206 বার

ইসলামী ঐক্যজোট নেতা এখন যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক

ইসলামী ঐক্যজোট সরাইল উপজেলার অরুয়াইল ইউনিয়ন শাখার সাধারণ সম্পাদক, সাবেক ইউপি সদস্য মোঃ মাসুক মিয়া এখন একই ইউনিয়নের আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক। গত মঙ্গলবার মোঃ বোরহান উদ্দিনকে আহবায়ক, ৫ জনকে যুগ্ম আহবায়ক এবং ৭ জনকে সদস্য করে মোট ১৩ সদস্যের আহবায়ক কমিটির অনুমোদন দেন উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। এ আহবায়ক কমিটিকে প্রত্যাখ্যান করেছেন একই কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী আমিনুল ইসলাম শেলভী।

দলীয় ও স্থানীয় একাধিক সূত্র জানায়, গত মঙ্গলবার বিকেলে অরুয়াইল কলেজ মাঠে ইউনিয়ন যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ২০১২ সালে মোঃ বোরহান মিয়াকে সভাপতি করে গঠিত হয়েছিল ৬১ সদস্যের অরুয়াইল ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগ। ৫ বছরেরও অধিক সময় পর বোরহান মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন সরাইল উপজেলা যুবলীগের (৫ সদস্য বিশিষ্ট আংশিক কমিটির) সভাপতি অ্যাডঃ আশরাফ উদ্দিন মন্তু। বিশেষ বক্তা ছিলেন সাধারণ সম্পাদক মোঃ শের আলম মিয়া। এ ছাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মিজানুর রহমান, স্থানীয় আওয়ামীলীগের সভাপতি আবু তালেব, সম্পাদক অ্যাডঃ মো. শফিকুল ইসলাম সহ দলের একাধিক সাবেক ও বর্তমান নেতৃবৃন্দ সভায় উপস্থিত থেকে স্বাক্ষর করেছেন। সভায় সকলের মতামতের ভিত্তিতে বর্তমান কমিটিকে বিলুপ্ত করেন উপজেলা যুবলীগ। পরে জুড়ি বোর্ডের মাধ্যমে দীর্ঘ সময় আলোচনার পর একটি এডহক কমিটি গঠন করা হয়। সাবেক সভাপতি মোঃ বোরহান মিয়াকে আহবায়ক ও অরুয়াইল ইউনিয়ন ইসলামী ঐক্যজোটের সাধারণ সম্পাদক ও ৬নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য মোঃ মাসুক মিয়াকে যুগ্ম আহবায়ক করে ১৩ সদস্যের একটি আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়। ইসলামী ঐক্যজোট নেতাকে যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক করায় সমালোচনা শুরু হয় গোটা অরুয়াইলে। অরুয়াইল ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. মিজানুর রহমান ও যুবলীগের বর্তমান আহবায়ক মোঃ বোরহান মিয়া বলেন, মাসুক যে ইসলামী ঐক্যজোটের নেতা আমরা জানতাম। সভার আগে যেখানে বলার বলেছি। কিন্তু কেউ শুনেনি।


ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ আবু তালেব বলেন, মাসুক মিয়া বিএনপি ও মোর্চার নেতা বারবার বলেছি। কিন্তু আমাদের এ কথা আমলে নেয়নি উপজেলা যুবলীগ। অরুয়াইলের আওয়ামীপন্থী সকল লোক মাসুকের পদের বিরোধীতা করেছে। উপজেলার ২ নেতা ও কুতুব ভাই ছিল মাসুকের পক্ষে। অন্য দলের লোক দিয়ে যুবলীগ গঠনের দায় দায়িত্ব আমরা নিব না। এটা বুঝবেন মন্তু ও শের আলম। তারা আবার সাদা কাগজে আমাদের স্বাক্ষর নিয়েছেন। ওদিকে আহবায়ক কমিটি ঘোষণার পরই লিখিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ওই কমিটি প্রত্যাখ্যান করেছেন উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী আমিনুল ইসলাম শেলভী। লিখিত বিজ্ঞপ্তিতে শেলভী জানায়, গত কয়েক মাস ধরে অত্যন্ত দুঃখের সাথে লক্ষ্য করা যাচ্ছে সরাইল উপজেলা যুবলীগের মেয়াদ উত্তীর্ণ আংশিক কমিটির সভাপতি ও সম্পাদক স্বেচ্ছাচারিতার মাধ্যমে বিভিন্ন ইউনিয়নে কমিটি গঠন করে আসছেন। যা যুবলীগের গঠনতন্ত্র পরিপন্থী। অত্যন্ত দুঃখজনক ও লজ্জাজনক। আওয়ামী যুবলীগের মত বড় সংগঠনের ভাবমূর্তি ক্ষুন্নকারী ও হটকারী সিদ্ধান্ত। তাই ঘৃণাভরে এসব কমিটি প্রত্যাখ্যান করছি। সেই সাথে সুষ্ঠ রাজনীতির স্বার্থে উপজেলা যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের লক্ষ্যে ত্যাগী নেতা কর্মীদের এগিয়ে আসার আহবান করছি।

এ বিষয়ে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি অ্যাডঃ আশরাফ উদ্দিন মন্তু বলেন, এটা ইমপসিবল। মাসুক গত ৫ বছর ধরে যুবলীগের কমিটিতে আছে। যুবলীগকেই যুবলীগের নেতৃত্ব দিয়েছি। অরুয়াইল ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ ও যুবলীগের সকল নেতাদের মতামতেই কমিটি করা হয়েছে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১