শিরোনাম

ই’তিকাফ আল্লাহর নৈকট্য লাভের অন্যতম মাধ্যম

মুফতী মোহাম্মদ এনামুল হাসান | সোমবার, ০৪ জুন ২০১৮ | পড়া হয়েছে 315 বার

ই’তিকাফ আল্লাহর নৈকট্য লাভের অন্যতম মাধ্যম

‘ ইতিকাফ ‘ আরবি উকুফ ধাতু থেকে উৎপন্ন। শব্দটির অর্থ কোনো বস্তু বা স্থানকে আঁকড়ে ধরে থাকা।
ইসলামী পরিভাষায় এর অর্থ হলো মহা প্রভু আল্লাহপাকের নৈকট্য লাভের আশায় কোনো মসজিদে নিজেকে আবদ্ধ রাখা।

আব্দুল্লাহ ইবনে ওমর (রা:) হতে বর্ণীত রাসুল (সা:)রমজানের শেষ দশদিন ইতিকাফ করতেন।( বুখারী,মুসলিম)।


হজরত আবু হুরাইরা (রা:) হতে বর্ণীত, তিনি বলেন, নবী করীম (সা:) প্রতি রমজান মাসের শেষ দশদিন ইতিকাফ করতেন। তারপর যখন সেই বছরটি এলো যে বছর তিনি ইন্তেকাল করেন। সে বছর তিনি বিশ দিন ইতিকাফ করেন।( বুখারী, আবু দাউদ)।

ইতিকাফ অত্যন্ত ফযিলতপূর্ণ এক গুরুত্বপূর্ণ এবাদত। আল্লাহতায়ালার নৈকট্যলাভে ইতিকাফ এক অনন্য মাধ্যম। ইতিকাফ হলো গুনাহ মাফ করানোর এবাদত।

কোনো শহর বা গ্রামের মসজিদে যদি কেউ ইতিকাফ না করে তাহলে ঐ এলাকার সকলে ই গুনাহগার হবে। যদি ও দুই একজন ইতিকাফ করলে সকলে ই দায়মুক্ত হয়ে যায়।

রাসুল(সা:)বলেছেন, যে ব্যক্তি রমজান মাসে( ১০দিন) ইতিকাফ করল সে যেন দুই হজ্ব ও দুই উমরা পালন করল।

ইতিকাফকারীর যা করা উচিত :
* যতো বেশি সম্ভব নফল নামায পড়া
* পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করা
* বেশি বেশি দুরুদ শরিফ পড়া
* তাসবিহ পাঠ করা * অধিকহারে তাওবা ইস্তেগফার করা * সর্বদা আল্লাহর ধ্যানে মগ্ন থাকা। * কোরআন, হাদিস তথা দ্বীনি শিক্ষায় মনোনিবেশ করা।

ইতিকাফকারী যা করতে পারবে না :
* রুগীর পরিচর্যার জন্য গমন করা
* জানাযার নামাজে শরিক হওয়া
* স্ত্রীকে স্পর্শ করা * স্ত্রীর সঙ্গে মিলিত হওয়া * বিশেষ প্রয়োজন ব্যতীত মসজিদের বাহিরে যাওয়া।(আবু দাউদ)।
আল্লাহতায়ালা আমাদের সকলকে ইতিকাফের মতো গুরুত্বপূর্ণ একটি এবাদত করার তাওফিক দান করুণ, আমিন।

লেখক
মুফতী মোহাম্মদ এনামুল হাসান
শিক্ষক, জামিয়া কোরআনিয়া সৈয়দা সৈয়দুন্নেছা ও কারিগরি শিক্ষালয়
কাজীপাড়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়া।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১