শিরোনাম

পয়াগ-নরসিংসার এ.বারী উচ্চ বিদ্যালয়ের নিয়োগের জের ধরে

ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হক এর বিরুদ্ধে বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে

স্টাফ রিপোর্টার | বৃহস্পতিবার, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | পড়া হয়েছে 856 বার

ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হক এর বিরুদ্ধে বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে

পূর্ববিরোধের জের ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার এক ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান ও তার সমর্থকদের বিরুদ্ধে এক ব্যক্তির বাড়ি ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে। সদর উপজেলার নাটাই (দক্ষিণ) ইউনিয়নের নরসিংসার গ্রামের বাসিন্দা শামীম উন বাছিরের বাড়িতে রোববার সন্ধ্যা (২০.০১.২০১৯) ও সোমবার সকালে দুই দফায় এ ভাঙচুর ও লুটপাট চালানো হয় বলে অভিযোগ করেছেন তার পরিবারের লোকজন।

তবে অভিযুক্ত ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাজমুল হক তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ শিকার করেছে। তিনি ইউপি চেয়ারম্যানের পাশাপাশি ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি।
সোমবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বাছিরের বাড়ির সীমানা প্রাচীর ভেঙে ফেলা হয়েছে। পাশাপাশি ঘরের টিনের বেড়া ভাঙচুর করে জিনিসপত্র লুটপাট করা হয়েছে।


বাছিরের ছোটবোন তাহমিনা আম্বিয়া জ্যোতি বলেন, এলাকায় আমাার দাদার নামে পয়াগ-নরসিংসার এ.বারী উচ্চ বিদ্যালয়ের স্কুলের নিয়োগ নিয়ে চেয়ারম্যান নাজমুলের সাথে আমার ভাইয়ের বিরোধ ছিল।

এরপর গত (২০.০১.২০১৯) আমাদের শহরের মৌলভীপাড়ার বাসার সামনে ভাইয়ের সাথে চেয়ারম্যানের বাগবিতণ্ডা হয়েছে। এসব নিয়ে চেয়ারম্যান ও তার লোকজন আমাদের বাড়িতে ভাঙচুর চালিয়েছে।

বাছিরে খালাত ভাই কামাল উদ্দিন বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হকের সাথে বাছিরের স্কুলের নানা বিষয় নিয়ে বিরোধ চলছে।

এসবের জের ধরে চেয়ারম্যান ও তার সমর্থকরা বাছিরের বাড়িতে ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়। ঘটনার পর চেয়ারম্যানের সমর্থকরা নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হক সাংবাদিকদের বলেন, রোববার সন্ধ্যায় বাছির আমাকে তার বাড়ির সামনে লাঞ্ছিত করেছে। আমি এ ঘটনায় রাতেই থানায় মামলা দায়ের করেছি।

এ ব্যাপারে সদর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন বলেন, ভাঙচুরের বিষয়টি এলাকার লোকজনের মাধ্যমে শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১