শিরোনাম

আশুগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের কমিটি বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

আশুগঞ্জ প্রতিনিধি | রবিবার, ২৫ আগস্ট ২০১৯ | পড়া হয়েছে 278 বার

আশুগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের কমিটি বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের নব-গঠিত আহবায়ক কমিটি বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন সম্প্রতি সাবেক হয়ে যাওয়া আহবায়ক কমিটির নেতারা। নব-গঠিত কমিটি বাতিলের দাবিতে রোববার (২৫আগস্ট ২০১৯) দুপুরে আশুগঞ্জ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলা যুবলীগের সাবেক কমিটির আহবায়ক মোঃ জিয়াউদ্দিন খন্দকার।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মোঃ জিয়াউদ্দিন খন্দকার বলেন, ২০১৪ সালের ১৯ অক্টোবর তাদের কমিটি অনুমোদন হয়। কমিটির প্রতি নির্দেশনা ছিলো উপজেলার ইউনিয়ন কমিটিগুলোর সম্মেলন করা। তিনি বলেন, আমরা ইউনিয়নের কমিটিগুলো করে উপজেলা সম্মেলন করার জন্য কাউন্সিলরদের তালিকা কেন্দ্রীয় যুবলীগের দফতর সম্পাদক কাজী আনিসুর রহমানের কাছে জমা দেই। কেন্দ্র থেকে আমাদেরকে জেলা যুবলীগের সাথে সমন্বয় করে সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণের নির্দেশনা দেয়া হয়। পরে জেলার সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের কাছে গিয়ে কেন্দ্রীয় নির্দেশনার কথা অবহিত করলে তারা সম্মেলনের তারিখ দিতে গড়িমসি করেন।


মোঃ জিয়াউদ্দিন খন্দকার আরো বলেন, জেলা যুবলীগ ১৬ বছরেও সম্মেলন করতে পারেনি। তাই আমরা চার বছরে কেন সম্মেলন করতে পারলাম না, এমন অভিযোগে আমাদের কমিটি বিলুপ্ত করা জেলা যুবলীগের স্বেচ্ছাচারী আচরণ। তিনি বলেন, কোন প্রকার কারণ না দর্শিয়ে আমাদের কমিটি বহাল থাকা অবস্থায় নতুন কমিটি দেয়া সম্পূর্ণভাবে যুবলীগের গঠনতন্ত্র পরিপন্থী।
এ সময় তিনি অভিযোগ করে বলেন, উপজেলার নতুন আহবায়ক কমিটি বিএনপি ও জাতীয় পার্টি পরিবারের অনুপ্রবেশকারীদের নিয়ে গঠন করা হয়েছে। তিনি আগামী ৩১ আগস্টের মধ্যে এই কমিটি বাতিলের দাবি জানান। কমিটি বাতিল না করা হলে লাগাতার আন্দোলন কর্মসূচিরও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।
সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক মোঃ শাহীন আলম বকসী, উপজেলা শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি কামাল মুন্সি, সাধারণ সম্পাদক আবু মুছা ও যুবলীগ নেতা হাসানুজ্জামান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ফেরদৌস বলেন, জেলা যুবলীগ হচ্ছে একটা নির্বাচিত কমিটি। আর আশুগঞ্জ উপজেলা কমিটি ছিলো আহবায়ক কমিটি। আহবায়ক কমিটির মেয়াদ থাকে মাত্র তিন মাস।

তিনি বলেন, আমরা কেন্দ্রের নির্দেশে আশুগঞ্জে যুবলীগের নতুন যে আহবায়ক কমিটি দিয়েছি সেটাই বৈধ কমিটি।
উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ১৯ অক্টোবর তিন মাসের জন্য গঠিত ৩৩ সদস্যের আহবায়ক কমিটি প্রায় পাঁচ বছরেও সম্মেলন করতে না পারার কারণে ওই কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে গত ২৪ জুলাই মোঃ সাইফুর রহমান মনিকে আহবায়ক ও আতাউর রহমান কবিরকে যুগ্ম আহবায়ক করে ৩৭ সদস্য বিশিষ্ট নতুন আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১