শিরোনাম

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা হেফাজতে ইসলামের সভাপতি

আল্লামা মনিরুজ্জামান সিরাজীর ইন্তেকাল ॥ জানাযায় হাজার-হাজার মানুষের ঢল

শফিকুল ইসলাম সোহেল | রবিবার, ০৯ আগস্ট ২০২০ | পড়া হয়েছে 177 বার

আল্লামা মনিরুজ্জামান সিরাজীর ইন্তেকাল ॥ জানাযায় হাজার-হাজার মানুষের ঢল

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকার ভাদুঘর জামিয়া সিরাজিয়া দারুল উলুম মাদরাসার অধ্যক্ষ শায়খুল হাদিস আল্লামা মনিরুজ্জামান সিরাজী ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)।

Exif_JPEG_420

রোববার (৯ই আগস্ট, ২০২০) দুপুর ১২টায় পৌর এলাকার ভাদুঘরের বাসভবনে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯১ বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও তিন মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন, গুনগ্রাহী রেখে যান। তাঁর মৃত্যুতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শোকের ছায়া নেমে আসে।


ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বড় হুজুর হিসেবে পরিচিত আল্লামা মনিরুজ্জামান সিরাজীর মৃত্যুর খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খাঁন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আল-মামুন সরকারসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ তাঁর বাড়িতে ছুটে যান।

আল্লামা মনিরুজ্জামান সিরাজী দেশের বিশিষ্ট আলেমেদ্বীন মোফাছ্ছিরে কোরআন মরহুম আল্লামা সিরাজুল ইসলামের ছেলে। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা হেফাজতে ইসলাম ও ইসলামী আইন বাস্তবায়ন কমিটি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার আমীর ছিলেন।

Exif_JPEG_420


বাদ আসর মরহুম প্রতিষ্ঠিত ভাদুঘর জামিয়া সিরাজিয়া দারুল উলুম মাদরাসা প্রাঙ্গনে নামাজে জানাযা শেষে পিতার কবরের পাশে তাঁর লাশ দাফন করা হয়। নামাজে জানাযায় ইমামতি করেন মরহুমের নাতি মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ সিরাজী।

এদিকে প্রশাসনের কড়া নজরদারি সত্বেও নামাজে জানাযায় হাজার হাজার মানুষ অংশ গ্রহন করেন। কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের পৌর এলাকার ভাদুঘর ফাটাপুকুরের পাড় থেকে সদর উপজেলার বিয়াল্লিশ্বর পর্যন্ত রাস্তার মধ্যে দাড়িয়ে মানুষ নামাজে অংশ গ্রহন করেন। নামাজে জানাযার জন্য বিকেল ৪টা থেকে ৬টা পর্যন্ত মহাসড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০