শিরোনাম

ভিক্ষুক মুক্ত হলো আখাউড়ার মোগড়া ইউনিয়ন

আমাদের সকলকে কাজ করতে হবে, কাউকে ভিক্ষা করতে দেওয়া যাবে না : ইউএনও মোহাম্মদ শামছুজ্জামান

আখাউড়া প্রতিনিধি : | সোমবার, ০৭ মে ২০১৮ | পড়া হয়েছে 130 বার

আমাদের সকলকে কাজ করতে হবে, কাউকে ভিক্ষা করতে দেওয়া যাবে না : ইউএনও মোহাম্মদ শামছুজ্জামান

আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুজ্জামান এর সার্বিক প্রচেষ্টায় এলজিএসপি-৩ এবং স্থানীয় সহযোগিতায় আখাউড়া উপজেলাকে ভিক্ষুক মুক্ত করার লক্ষ্যে গতকাল ৬ মে সকাল সাড়ে ১০টায় মোগড়া ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গণে মানব সম্পদ উন্নয়নে দুঃস্থদের প্রশিক্ষণ ও উপকরণ সরবরাহ করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুজ্জামান। সভাপতিত্ব করেন মোগড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ মনির হোসেন। বক্তব্য রাখেন একটি বাড়ি একটি খামার উপজেলা সমন্বয়কারী মোসাম্মৎ নাছরিন আক্তার, আখাউড়া গ্রামীণ ব্যাংক ম্যানেজার মোঃ আবুল বাশার ফারুক চকদার, আশা আখাউড়া সিনিয়র ব্রাঞ্চ ম্যানেজার জাহাঙ্গীর চৌধুরী, ৩নং ওয়ার্ড সদস্য আওয়াল মিয়া প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুজ্জামান বলেন, বাংলাদেশ এখন স্বল্পোন্নত দেশের স্ট্যাটাস হতে উন্নয়নশীল দেশ হয়েছে। আমাদের সকলকে কাজ করতে হবে এবং কাউকে ভিক্ষা করতে দেওয়া যাবে না। তাই তিনি আখাউড়া উপজেলাকে ভিক্ষুক মুক্তকরণের লক্ষ্যে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।


অনুষ্ঠান শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোগড়া ইউনিয়নের ৬ জন ভিক্ষুককে পুণর্বাসনের লক্ষ্যে তাদের হাতে বিভিন্ন উপকরণ তুলে দেন। তন্মধ্যে জোবেদা বেগমকে একটি রিক্সা, আনোয়ারা বেগমকে কাপড়ের ব্যবসা সামগ্রী, হাসেনা বেগমকে কাঠের ব্যবসার জন্য কাঠমিস্ত্রী যন্ত্রপাতি, শারিরীক প্রতিবন্ধী মোঃ কালা মিয়াকে মুদি দোকান সামগ্রী, আব্দুল খালেককে মুদি দোকান সামগ্রী এবং দৃষ্টি প্রতিবন্ধী মোঃ ইউসুফ মিয়াকে ফ্লেক্সি লোড ব্যবসা পরিচালনার জন্য ফ্লেক্সিসহ মোবাইল ফোন প্রদান করেন। এ ধারাবাহিকতার অংশ হিসেবে ইতিপূর্বে ধরখার ইউনিয়নকে ভিক্ষুকমুক্ত করা হয়েছে এবং আগামী ৯ মে সকাল সাড়ে ১০টায় মনিয়ন্দ ইউনিয়নের ভিক্ষুকদের পুণর্বাসনের লক্ষ্যে তাদের মাঝে বিভিন্ন উপকরণ সরবরাহ করা হবে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০