শিরোনাম

আবারও বনানীতে জন্মদিনের পার্টিতে ডেকে নিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ

বিশেষ প্রতিনিধি : | সোমবার, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | পড়া হয়েছে 112 বার

আবারও বনানীতে জন্মদিনের পার্টিতে ডেকে নিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ

রাজধানীর বনানীতে আবারও জন্মদিনের পার্টিতে ডেকে নিয়ে এক নারীকে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ওই নারী রোববার (০৪.০২.২০১৮) রাতে বনানী থানায় মামলা করেছেন।
এ ঘটনায় রাজীব আহমেদ এবং তাঁর বন্ধু রুবেল হোসেন জয় নামের দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁদের পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে।
বনানী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বোরহানউদ্দিন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তাও।
এর আগে জন্মদিনের পার্টির কথা বলে বনানীর রেইনট্রি হোটেলে আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলে ও তাঁর বন্ধুর বিরুদ্ধে দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে। সে ঘটনা করা মামলাটি এখন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে বিচারাধীন।
মামলার বরাত দিয়ে তদন্ত কর্মকর্তা বোরহানউদ্দিন জানান, মোবাইল ফোনে ওই নারীর সঙ্গে রাজীবের পরিচয়। এর সূত্র ধরে গত শনিবার রাতে ওই নারীকে জন্মদিনের পার্টির কথা বলে বনানীর একটি গেস্ট হাউসে আমন্ত্রণ জানান রাজীব। ওই নারী রাত সাড়ে আটটার দিকে গেস্ট হাউসে আসেন। সেখানে রাজীবের সঙ্গে তাঁর বন্ধু জয়ও ছিলেন। তাঁরা রাতভর সেখানে আটকে রেখে ওই নারীকে ধর্ষণ করেন বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়।
সেখান থেকে ছাড়া পেয়ে গতকাল রোববার রাতে মামলা করেন ওই নারী। তারপরই দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানান বোরহানউদ্দিন। তিনি আরও জানান, ওই নারীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।
গত বছরের ২৮ মার্চ রাতে জন্মদিনের পার্টির কথা বলে বনানীর রেইনট্রি হোটেলে ডেকে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ ওঠে। ঘটনার ৪০ দিন পর এ ব্যাপারে বনানী থানায় মামলা করতে গেলে মামলা না নিয়ে বাদীকে পুলিশ হয়রানি করে। এ ঘটনা গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে হইচই পড়ে যায়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোয় বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হয়। এরপর পুলিশ মামলা নেয়।
মামলার অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে, জন্মদিনের পার্টির কথা বলে গত ২৮ মার্চ রাতে বনানীর রেইনট্রি হোটেলে ডেকে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া দুই তরুণীকে ধর্ষণ করেন আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে শাফাত আহমেদ ও তাঁর বন্ধু নাঈম আশরাফ। গত ৮ জুন শাফাত আহমেদ, তাঁর বন্ধু নাঈম আশরাফ ওরফে আবদুল হালিমসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আনা হয়। অপর তিনজন আসামি হলেন শাফাতের বন্ধু সাদমান সাকিফ, গাড়িচালক বিল্লাল হোসেন ও তাঁর দেহরক্ষী রহমত আলী। ১৩ জুলাই মামলায় অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে বিচার শুরু হয় । বর্তমানে সব আসামি কারাগারে।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১