শিরোনাম

অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতি ১২৮ কর্মকর্তার

বিশেষ প্রতিনিধি : | সোমবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৭ | পড়া হয়েছে 133 বার

অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতি ১২৮ কর্মকর্তার

প্রশাসনে অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতি পেয়েছেন ১২৮ যুগ্মসচিব। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে সোমবার পদোন্নতির আদেশ জারি করা হয়েছে। গত কয়েক মাস ধরে জনপ্রশাসনে তিনস্তরে পদোন্নতির গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল। অবশেষে অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতি চূড়ান্ত হলো। অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতি দিয়ে ১২৮ কর্মকর্তাকে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) করা হয়েছে। তবে তাদের পদায়ন করা হয়নি। এখন প্রশাসনে অতিরিক্ত সচিবের সংখ্যা হলো ৫৬০ জন। যদিও অতিরিক্ত সচিবের স্থায়ী পদের সংখ্যা একশ’র বেশি।
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানান, প্রশাসনে অতিরিক্ত সচিব হিসেবে এমনিতেই নিয়মিত পদের চেয়ে বেশি সংখ্যক কর্মকর্তা রয়েছেন। তার ওপর আবার পদোন্নতি দেয়া হলো। এতে প্রশাসনে আরও বিশৃঙ্খলা দেখা দেবে। পদোন্নতি পাওয়ার পরও অনেককে নিচের পদে কাজ করতে হবে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নিয়োগ, পদোন্নতি প্রেষণ (এপিডি) অনুবিভাগের অতিরিক্ত সচিব শেখ ইউসুফ হারুন বলেন, ‘লিয়েন প্রেষণসহ আরও পাঁচজনের পদোন্নতির আদেশ জারি করা হবে।’ অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতির জন্য কোন কোন ব্যাচকে বিবেচনায় নেয়া হয়েছে জানতে চাইলে অতিরিক্ত সচিব বলেন, ‘সর্বশেষ নবম ব্যাচ থেকে এর আগের সব ব্যাচের বঞ্চিত (লেফট আউট) কর্মকর্তাদের পদোন্নতির জন্য বিবেচনায় নেয়া হয়েছে।’ ১২৮ জনকে অতিরিক্ত পদে পদোন্নতি দেয়া হলেও অনেকে পদোন্নতি বঞ্চিত হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। সবধরনের যোগ্যতা থাকার পরও পদোন্নতি পাননি বলে দাবি করেছেন কয়েকজন যুগ্ম-সচিব।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইউসুফ হারুন বলেন, ‘যে কর্মকর্তাদের পদোন্নতি দেয়া যায়নি তারা মিডিয়ার সামনে বলবেন যে- আমি তো যোগ্য ছিলাম। যোগ্য ছিলেন কিনা তা এসএসবি (সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ড, যার নেতৃত্বে আছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব) জানে, আমরা জানি। কারও বিরুদ্ধে বিভাগীয় মোকাদ্দমা আছে, এসিআরে (বার্ষিক গোপনীয় প্রতিবেদন) কারও মার্কস কম।’
পদোন্নতিপ্রাপ্তদের কবে নাগাদ পদায়ন করা হবে জানতে চাইলে এপিডি বলেন, ‘আমরা পদায়নের জন্য কাজ করছি। সবাইকে আমরা পদায়ন করতে পারব না। বেশিরভাগ কর্মকর্তা যেখানে ছিলেন ওই কর্মস্থলেই থাকবেন, অর্থাৎ ইনসিটু রাখা হবে। রেগুলার পদ তো কম। এখন তো পদের বিপরীতে তো প্রমোশন হয় না।’ জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে, মন্ত্রিপরিষদ সচিবের নেতৃত্বে সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ড (এসএসবি) পদোন্নতির তালিকা চূড়ান্ত করে তা অনুমোদনের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পাঠানো হয়। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী আরও যাচাই-বাছাই করে পদোন্নতির তালিকা করার নির্দেশ দেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ফের সভায় বসে তালিকা চূড়ান্ত করে এসএসবি। এরপরই সেই তালিকা অনুমোদন দেন প্রধানমন্ত্রী। ‘সরকারের উপ-সচিব, যুগ্ম-সচিব, অতিরিক্ত সচিব ও সচিব পদে পদোন্নতি বিধিমালা, ২০০২’তে বলা হয়েছে, অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতির ক্ষেত্রে ৭০ শতাংশ প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তাদের ও ৩০ শতাংশ অন্যান্য ক্যাডারের যুগ্ম-সচিব পদে কমর্রতদের বিবেচনায় নিতে হবে। বিধিমালা অনুযায়ী, যুগ্ম-সচিব পদে কমপক্ষে তিন বছর চাকরিসহ ২০ বছরের চাকরির অভিজ্ঞতা বা যুগ্ম-সচিব পদে কমপক্ষে দুই বছরের চাকরিসহ ২২ বছরের অভিজ্ঞতা থাকলে অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতির জন্য বিবেচিত হন।
উপসচিব থেকে যুগ্মসচিব ও সিনিয়র সহকারী সচিব থেকে উপসচিব পদেও পদোন্নতি শিগগিরই আসছে বলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে।
সর্বশেষ গত ২৩ এপ্রিল প্রশাসনে সিনিয়র সহকারী সচিব ও সমমর্যাদার ২৬৭ কর্মকর্তাকে উপসচিব পদে পদোন্নতি দেয় সরকার। এর আগে গত বছরের ২৭ নভেম্বর জনপ্রশাসনে বড় ধরনের পদোন্নতি দেয়া হয়। ওই সময় অতিরিক্ত সচিব, যুগ্ম-সচিব ও উপ-সচিব পদে ৫৩৬ জন কর্মকর্তা পদোন্নতি পান।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০